নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন:

নোয়াখালীতে আসামী সুমন ৪ দিনের রিমান্ডে, দুই মামলায় দেলোয়ার শোন এরেস্ট, ইউপি সদস্য সোহাগের জামিন আবেদন নাকচ

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ১৩ অক্টোবর, ২০২০ | ১৩:৫৩ অপরাহ্ণ |আপডেট: ১৩ অক্টোবর, ২০২০ | ১৩:৫৩

ষ্টাফ রিপোর্টার: নোয়াখালীর এখলাশপুরে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা দেলোয়ার বাহিনী প্রধান দেলোয়ার হোসেনকে নির্যাতিন ওই নারীর দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পর্ণোগ্রাফি মামলায় গ্রেপ্তারের আবেদন মঞ্জুর করেছে আদালত।
দেলোয়ারকে সকাল সাড়ে ১১টায় জেলার ১নং আদালতে উপস্থাপন করে উল্লেখিত দুই মামলায় শোন এরেষ্টের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই নোয়াখালী কার্যালয়ের পরিদর্শক মামুনুর রশিদ পাটোয়ারী। এ বিষয়ে শুনানী শেষে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মাসফিকুল হক তদন্ত কর্মকর্তার আবেদন মঞ্জুর করে দেলোয়ারকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। ধর্ষণের ঘটনায় ভুক্তভোগীর দায়ের করা অন্য একটি মামলায় দেলোয়ারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই মামলার প্রধান আসামী দেলোয়ার।
নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ৬নম্বর আসামি শামছুদ্দিন সুমনকে একই আদালতে উপস্থাপন করে তদন্ত কর্মকর্তা ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করা হলে বিচারক ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার অপর আসামী ইউপি সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন সোহাগ একই আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারকতা নাকচ করে দেন।
দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পর্ণোগ্রাফি মামলার ৩ নম্বর আসামী আবুল কালামে আদালতে তোলা হয়। বিকেলে বিচারকের কাছে সে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবনবন্দি দেয়।

Please follow and like us:

এরকম আরো সংবাদ