হাতিয়ায় কয়েলের থেকে আগুনে ছয় দোকান ছাই

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ২০ ডিসেম্বর, ২০২০ | ১৪:২৫ অপরাহ্ণ |আপডেট: ২০ ডিসেম্বর, ২০২০ | ১৪:২৫

স্টাফ রিপোর্টার: নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার পৌর এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে অন্তত ৬টি দোকানের মূল্যবান মালামাল পুড়ে অন্তত বিশ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী ক্ষতিগ্রস্থদের। তবে আগুনে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
রবিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে পৌরসভার চৌমুহনী বাজারে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার রাতে চৌমুহনী বাজারের বেশির ভাগ ব্যবসায়ী দোকান বন্ধ করে বাড়ী চলে যায়। রাত তিনটার দিকে বাজারের ফরিদ বেডিং হাউজ থেকে হঠাৎ করে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় বাজারে থাকা ব্যবসায়ী ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করে এবং ফায়ার সার্ভিসকে অবগত করে। খবর পেয়ে হাতিয়া স্টেশনের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু তার আগে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় ফরিদ বেডিং হাউজ, মর্জিনা ক্লথ স্টোর, আল আমিন ভারাইটিজ স্টোর, ইয়াছিন স্টোর, আনোয়ার ইলেট্টনিকসহ ছয়টি দোকানের মূল্যবান মালামাল ও নগদ টাকা পুড়ে যায়। এতে অন্তত বিশ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে রাতেই তিনি পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
হাতিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার হারুন অর রশিদ জানান, খবর পেয়ে আমাদের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ দোকানগুলো থেকে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মশার কয়েলের আগুন থেকে এ অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়েছে।

Please follow and like us:

এরকম আরো সংবাদ