আঞ্চলিক গানের জনক শিল্পী হাশেমের জন্মজয়ন্তী

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ১০ জানুয়ারি, ২০২১ | ১২:৫৩ অপরাহ্ণ |আপডেট: ১০ জানুয়ারি, ২০২১ | ১২:৫৩

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ নোয়াখালীর আঞ্চলিক গানের জনক, গীতিকার, সুরকার ও দেশবরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী প্রয়াত অধ্যাপক মোহাম্মদ হাশেম এর জন্মজয়ন্তী পালিত হয়েছে।
রোববার বিকাল পৌনে ৩টায় জেলা শহরের মাইজদী কোর্ট মসজিদ সংলগ্ন মোহাম্মদ হাশেমের সমাধিতে ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পস্তবক অর্পন শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনের সড়কে একটি র‌্যালি বের হয়। পরে মোহাম্মদ হাশেম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নোয়াখালী জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা, তথ্যচিত্র প্রদর্শনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় মোহাম্মদ হাশেম ফাউন্ডেশনের আহবায়ক, কবি, প্রবন্ধকার ও নোয়াখালীর সাবেক রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী কাজী মানসুরুল হক খসরুর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আল হেলাল মো. মোশাররফ।
এতে মোহাম্মদ হাশেম ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহবায়ক এমদাদ হোসেন কৈশরের সঞ্চালনায় আলোচনা করেন, ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব, মোহাম্মদ হাশেমের জৈষ্ঠ পুত্র সাংবাদিক মুস্তফা মনওয়ার সুজন, সাংবাদিক মাহম্মদুল হক ফয়েজ, নাট্যকার সাজ্জাদ রহমান, কবি-অধ্যাপিকা শিরিন আক্তার প্রমূখ।

শিল্পকলায় মোহাম্মদ হাশেমের জীবন নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র প্রদর্শনী এবং তাঁর রচিত গান পরিবেশন শুনে আবেগ-আপ্লুত হয়ে পড়েন সমবেত শিল্পী-দর্শনাথীরা। গান পরিবেশন করেন শিল্পী শাহনাজ হাশেমসহ হাশেম পরিবারের সদস্য ও জেলার বিশিষ্ট শিল্পীরা।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সমন্বয় করেন মোহাম্মদ হাশেমের কনিষ্ঠ পুত্র সংগীত শিল্পী রায়হান কায়সার হাশেম।
১৯৪৭ সালের ১০ জানুয়ারি নোয়াখালী সদর উপজেলার শ্রীকৃষ্ণপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মোহাম্মদ হাশেম। তিনি একাধারে নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় সহস্রাধিক গানের রচয়িতা, সুরকার, গায়ক ও অধ্যাপক ছিলেন।
২০২০ সালের ২৩ মার্চ তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এই গুণী শিল্পীর স্মৃতি সংরক্ষণ ও তাঁর গানের চর্চা অব্যাহত রাখার জন্য গঠন করা হয়েছে ‘মোহাম্মদ হাশেম ফাউন্ডেশন’।

Please follow and like us:

এরকম আরো সংবাদ