অপহরণে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা

নোয়াখালী বার্তা ডেস্ক | ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১৩:২৬ অপরাহ্ণ |আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১৩:২৬

ষ্টাফ রিপোর্টার:
নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায় প্রকাশ্যে দিবালোকে বিন্তু (২০) নামে এক কলেজছাত্রীকে অপহরণে ব্যর্থ হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা।
মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে পৌর এলাকার নাওতলা মহল্লার মমিন কমিশনারের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।
পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
স্থানীয়রা জানায়, নাওতলা গ্রামের খোরশেদ আলম রতনের মেয়ে ও পৌর এলাকার ভানুয়াই গ্রামের জহিরুল ইসলাম জহির কমিশনারের ছেলে রিয়াজ ভূঁইয়ার স্ত্রী বিন্তু বিকেলে কলেজ থেকে রিকশায় করে নাওতলায় গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিল। তাকে বহনকারী রিকশাটি মোমিন কমিশনারের বাড়ির সামনে পৌঁছালে হেলমেট ও মুখোশ পরিহিত তিন যুবক রিকশার গতিরোধ করে চালককে মারধর করে তাকে জোর করে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে।
এসময় ছাত্রীটি চিৎকার দিলে দুর্বৃত্তরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. ফেরদৌসি আক্তার জানান, বিকেলে রক্তাক্ত অবস্থায় এক কলেজছাত্রীকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার দুই হাতে, পিঠে ও বুকে ও গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
আহত কলেজছাত্রী বিন্তু অভিযোগ করে বলেন, আমার স্বামীর সঙ্গে রাজনৈতিক বিরোধের জেরেই দুর্বৃত্তরা এ হামলা ঘটিয়েছে। আমি তাদের বিচার চাই।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুস সামাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। কিন্তু কোনো লিখিত অভিযোগ এখনো পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

Please follow and like us:
error0

এরকম আরো সংবাদ