নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে স্পিরিট পানে ৬ জনের মৃত্যুতে মামলা

নোয়াখালী বার্তা ডেস্ক | ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১৩:৩৪ অপরাহ্ণ |আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১৩:৩৫

স্টাফ রিপোর্টার:
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাটে হোমিও দোকানে স্পিরিট পানে ৬ জনের মৃত্যুর ঘটনায় কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার রাতে এ মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-২৭, তাং-২৮.৯.২০১৯ইং। নিহত নূর নবী মানিকের ভাগিনা বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় রফিক হোমিও হলের মালিক ডা. সৈয়দ জাহেদ উল্যাহ (৬৫) ও তার ছেলে সৈয়দ মিজানুর রহমানকে আসামী করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোম্পানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শিশির কুমার বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় নিহতের ভাগ্নে বাদী হয়ে মামলা করেছেন এবং ৩০২ ধারায় হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ওই হোমিও দোকানে স্পিরিট পানে শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রথমে ৫ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। পরে শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে আরও ১জনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পুলিশ স্পিরিট বিক্রেতার ছেলে প্রিয়মকে আটক করে। পরে তার ভাষ্যমতে, তার বাবা স্পিরিট বিক্রেতা ডা. জায়েদ উল্যাহকে শনিবার ভোর রাতের দিকে অভিযান চালিয়ে আটক করে পুলিশ।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সল আহমদ জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অভিযুক্তের হোমিও দোকান তল্লাশি করে উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসন দোকানটি সিলগালা করে দিয়েছে। এসময় নিষিদ্ধ স্পিরিটসহ হোমিও প্যাথিক ওষুধ জব্দ করা হয়েছে এবং জব্দকৃত ওষুধ পরীক্ষার জন্য ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে, রোববার দুপুরে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখার দায়ে এবং লাইসেন্স না থাকায় কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাটের ন্যাশনাল হোমিও হল এবং জিয়া হোমিও হল নামের দুটি হোমিও দোকান সিলগালা করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ওই সময় ন্যাশনাল হোমিও হলকে ২০ হাজার টাকার জরিমানা এবং জিয়া হোমিও হলকে ৩০ হাজার টাকা অর্থ দন্ডাদেশ দেয়া হয়।

Please follow and like us:
error0

এরকম আরো সংবাদ