চাটখিলে পাঁচগাঁও ইউনিয়নে আ’লীগ জয়ী

নোয়াখালী বার্তা ডেস্ক | ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ | ০৭:৪০ পূর্বাহ্ণ |আপডেট: ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ | ০৭:৪০

চাটখিল প্রিতিনিধ:
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার ৬ নম্বর পাঁচগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তরুণ ৩৮৪৭ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত (স্বতন্ত্র) প্রার্থী ইমাম হোসেন টিপু আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৭৭৬ ভোট।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. দিদারুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে, দুপুরে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ইমাম হোসেন টিপু নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি ও জাল ভোটের অভিযোগ এনে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের এবং দুপুর ২টার দিকে তিনি ভোট বর্জন করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভোটগ্রহণ চলাকালে সকাল ৯টার দিকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে আনারসের এজেন্টদের ভয়ভীতি দেখিয়ে জাল ভোট দেওয়া শুরু হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে আনারসের এজেন্টদের মারধর করে ভোটকেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে বেলা ১১টার পর থেকে ৯টি কেন্দ্রেই নৌকা প্রতীকে জাল ভোট দেওয়া হয়। এর ফলে আনারস প্রতীকের অনেক ভোটার ভয়ে কেন্দ্র থেকে চলে যেতে বাধ্য হন।

তবে এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তরুণ জানান, বিএনপির প্রার্থী এলাকার অতিথি হিসেবে ভোট করতে আসায় স্থানীয় ভোটাররা তাকে প্রত্যাখ্যান করে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়েছেন। এখানে কোনো ভোট জালিয়াতি, এজেন্টকে মারধর কিংবা বের করে দেওয়া হয়নি। তিনি অহেতুক মিথ্যাচার করছেন বলে দাবি করেন তিনি।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শাহাজাহান হোসেন মামুন আনারস প্রতীক প্রার্থীর স্বাক্ষরিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, অভিযোগ পেয়ে তদন্ত করে উপরে রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, গত ২১ জুন রাতে পাঁচগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বজলুর রহমান বাবুল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে চেয়ারম্যান পদটি শূন্য হয়।

Please follow and like us:
error0

এরকম আরো সংবাদ