নোয়াখালীতে স্ত্রীর শরীরে খুন্তির ছ্যাঁকা, বিদেশ পালানোর সময় স্বামী আটক

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ১২:০১ অপরাহ্ণ |আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ১২:০১

ষ্টাফ রিপোর্টার: নোয়াখালীতে যৌতুকের জন্য স্ত্রীর মাথার চুল কেটে দিয়ে এবং গরম খুন্তি দিয়ে সারা শরীর ঝলসে দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত সৌদি প্রবাসী স্বামী মোশারফ হোসেন ওরফে উজ্জ্বলকে (৩৫)গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে সাড়ে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার নোয়াখালীর সুধারাম থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগীর বাবা ইউছুফ আলী।
নোয়াখালী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মো. আবদুর রহীম জানিয়েছেন, বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন থেকে মোশাররফকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তিনি সৌদি আরব চলে যেতে চেয়েছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার সোন্দলপুর ইউনিয়নের বড় রামদেবপুর গ্রামের ইউসুফ আলীর মেয়ে নিলুফার ইয়াসমিন কলির সঙ্গে বেগমগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের খানপুর গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে মোশাররফ হোসেন উজ্জ্বলের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে পাঁচ বছরের একটি ছেলে সন্তান আছে।
উল্লেখ্য, বুধবার রাতে জেলা শহরের বসিরার দোকান এলাকায় ভাড়া বাসায় যৌতুকের জন্য কলির মাথার চুল কেটে দিয়ে গরম খুন্তি দিয়ে সারা শরীর ছ্যাঁকা দিয়ে কলিকে ঝলসে দেন উজ্জ্বল। একপর্যায়ে ছেলেকে নিয়ে পালিয়ে বাবার বাড়িতে ওঠেন কলি। সেখান থেকে শুক্রবার তাকে চিকিৎসার জন্য কবিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
কবিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সন্ত্রাসী নিয়ে হামলা চালান উজ্জ্বল। সোমবার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন চিকিৎসক। সেখান থেকে বিকেলে তাকে জেলা সদরে নেয়ার সময় আবারও ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন উজ্জ্বল। পরে স্থানীয় লোকজনের তাড়া খেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

Please follow and like us:

এরকম আরো সংবাদ