নোয়াখালীতে নতুন বইয়ের ঘ্রাণে মাতোয়ারা শিক্ষার্থীরা

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ১ জানুয়ারি, ২০২০ | ১৫:১৬ অপরাহ্ণ |আপডেট: ১ জানুয়ারি, ২০২০ | ১৫:১৬

ষ্টাফ রিপোর্টার:
নোয়াখালীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে পালিত হয়েছে বই উৎসব। ২০২০ শিক্ষা বর্ষের প্রাক-প্রাথমিক থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীর হাতে বছরের প্রথম দিনে তুলে দেয়া হচ্ছে বিনা মূল্যের নতুন বই। হাতে পাওয়া নতুন বইয়ের ঘ্রাণে মাতোয়ারা হয়ে উঠেছে শিক্ষার্থীরা।

বুধবার সকালে এ আয়োজনকে ঘিরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাজানো হয়েছে বর্ণাঢ্য সাজে। জেলায় এ বছর ৯টি উপজেলার ১২৫৩টি সরকারী বিদ্যালয়ে ১৯ লক্ষ ১০ হাজার ৭শত ১১টি নতুন বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে। উৎসবে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়েছেন।

নতুন বছরের প্রথম দিনে নতুন বই পেয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের হাসির আলো যেমন ছড়াচ্ছে তেমনি অভিভাবকরাও বিনা মূল্যের সরকারের বই উপহার পেয়ে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রীকে।

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানান, নতুন শ্রেণীতে নতুন বই পাওয়ার আনন্দই অন্যরকম। সে বই যদি বিনা মূল্যে পাওয়া যায় তাহলে তো কথাই নেই।

নোয়াখালীর উপকূলীয় চরাঞ্চলের অনেক দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের বই কেনার সামর্থ্য ছিলোনা। পুরাতন বই দিয়েই বছর পার করতে হতো তাদের। এখন সবার হাতেই নতুন বই। তাই উৎসবমুখর পরিবেশে সর্বস্তরের শিশু-কিশোররা বই উৎসবে শামিল হয়েছে।

সকালে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জিলা স্কুল অডিটোরিয়ামে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস, পুলিশ কেজি স্কুলে নতুন বই তুলে দেন পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন, সালেহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন বই তুলে দেন সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান, নোয়াখালী উচ্চ বিদ্যালয়ে নতুন বই তুলে দেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, সল্যাঘটাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাইদুল ইসলাম ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আরিফুল ইসলাম সরদার শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20

এরকম আরো সংবাদ