শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দুর্নীতিমুক্ত হবে: মির্জা

দৈনিক নোয়াখালীবার্তা | ৯ জুলাই, ২০২১ | ১৫:২০ অপরাহ্ণ |আপডেট: ৯ জুলাই, ২০২১ | ১৫:২০

ষ্টাফ রিপোর্টার :  গৃহহীনদের দেয়া উপহারের ঘরে যারা দুর্নীতি করেছেন তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী জিরো টলারেন্স পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা।
বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গৃহহীনদের জন্য প্রায় ৪ লাখ ৪২ হাজার ৬০৮টি বিনামূল্যে ঘর উপহার দিয়েছেন। সেগুলোর মধ্যে দুর্নীতি করার কারণে এখন পর্যন্ত পাঁচজন কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছে। আর দুইজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। বাকি কর্মচারীদেরকে শোকজ করা হয়েছে।

কাদের মির্জা নিজ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে বৃহস্পতিবার রাতে এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান তিনি।
কাদের মির্জা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ১৬ থেকে ১৭ লাখ রোহিঙ্গাকে পূর্ণবাসন করেছেন। এ জন্য শেখ হাসিনার নাম একজন মানবিক নেত্রী হিসেবে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।
মেয়র মির্জা বলেন, ‘নোয়াখালীর অপরাজনীতির হোতাদের কমিটি থেকে সরিয়ে ভালো মানুষদের স্থান দিলে শেখ হাসিনার কাছে আমরা চির কৃতজ্ঞ থাকব।’

তিনি বলেন, ‘বিগত ৬ মাস ধরে দৈনিক প্রথম আলো ও যায়যায় দিন পত্রিকা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে। নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সেলিম সাহেবের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক নষ্ট করা ও জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিকে বিলম্ব করার প্ররোচনায় এই দুইটা পত্রিকা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে। কিন্তু আমি সেলিম সাহেবকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, গত তিন মাসের মধ্যে এই দুটি পত্রিকার প্রতিনিধির সঙ্গে তার যোগাযোগ হয়নি।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘প্রথম আলোর নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি মাহবুব সাহেবকে বলছি, আপনি আমাদের দল করেন না। আপনি কীভাবে বাংলাদেশের প্রগতিশীল দৈনিক জাতীয় পত্রিকা প্রথম আলোর প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন?’
তিনি আরও জানান, কিছু অনলাইন পত্রিকা প্রতিনিয়ত আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে আমার পরিবার, ওবায়দুল ও জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এসব মিথ্যাচার করছে।
এইসব মিথ্যাচারের নিন্দা জানিয়ে ওইসব পত্রিকায় নিউজের প্রতিবাদ না দিলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও কঠোর হুঁশিয়ারি দেন মেয়র মির্জা।

Please follow and like us:

এরকম আরো সংবাদ